আমিও তাবলিগের সাথী : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব মো. ফরিদুল হক খান বলেছেন, আমি তাবলিগের সাথী। তাবলিগে দুই ভাগে বিভক্ত থাকবে না। তাবলিগে এখন যে ব্যবধানটা দেখছেন। যেমন দুই ভাগে বিভক্ত। এগুলো থাকবে না। জ্ঞানের বোঝ আল্লাহ তাআলা যখন দিবেন অবশ্যই আল্লাহ তাআলা এর সমাধান করবেন। এর মানে এই না তাবলিগ খারাপ।

তাবলিগের মধ্যে যারা আছেন তাদের মধ্যে হয়তো দ্বিধাদ্বন্দ্ব হয়েছে সাময়িক ভাবে। তাদের সামাধান আল্লাহ তাআলা অবশ্যই করবেন।শুক্রবার রাতে ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের পূর্ব রাজাপুর এলাকায় আহমাদিয়া আরাবিয়া মাদরাসা মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে এসব কথা বলেন তিনি।এ সময় তিনি আরো বলেন, আল্লাহকে পাওয়ার

জন্য তাবলিগ জামাত নিজের জন্য দরকার। নিজের সুদ্ধির জন্য দরকার। তাবলিগে গিয়ে শিখা যায়। আমি গিয়ে শিখেছি। আমার বাবা তাবলিগে গিয়ে মারা গেছেন। যুবকদের কাছে অনুরোধ আল্লাহকে পেতে হলে তাবলিকে সময় দাও।অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান, স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ আলেম ওলামাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন=বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) চূড়ান্তকরণের লক্ষ্যে রিভিউ সংক্রান্ত গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির সভা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।রেলওয়ে স্টেশন ও সদরঘাটের বিষয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল বলেন, এক সময় শহর ছিল ছোট, মানুষের সংখ্যা ছিল কম। এজন্য রেলওয়ে স্টেশনকে কেন্দ্র করে কিন্তু উন্নয়নগুলো হয়েছে। এখন এমন একটা জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছে যে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনটা আমাদের

জন্য সবচেয়ে বেশি যন্ত্রণার কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে। সময়ের ব্যবধানে আমরা এখন এসব বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে পারি। সে চিন্তা এভাবে বিসমিল্লাহ আকারে নয়। আমাদের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে। এবছর এতটুকু করবো পরের বছর এতটুকু করবো। এতে করে আস্তে আস্তে আমাদের চাহিদাগুলো পূরণ হয়ে যাবে। এসব বিষয় মাথায় রেখে কাজ করতে হবে।স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, আমাদের দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য জনগণের অংশ গ্রহণ অপরিহার্য। জনগণ যখন আমাদের

পাশে থাকবে তখন তারা বুঝবে যে আমরা ভালো কাজ করছি। কোনো পক্ষের ক্ষতির জন্য ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) পাস করা হচ্ছে না। দেশে বসবাসরত সব শ্রেণি পেশার মানুষের সীমাবদ্ধতার মধ্যে যতটুকু সুবিধা নিবিঘ্নে দেওয়া যায় তার সবগুলো রাখা হয়েছে। এ প্ল্যানে সবাইকে যথাযথ সম্মান করা হয়েছে। ব্যবসায়ী ও বিল্ডারদের অবদান যাতে খর্ব করা না হয় সে বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *